1. Hi Guest Pls Attention! Kazirhut Accepts Only Benglali (বাংলা) & English Language On this board. If u write something with other language, you will be direct banned!

    আপনার জন্য kazirhut.com এর বিশেষ উপহার :

    যেকোন সফটওয়্যারের ফুল ভার্সনের জন্য Software Request Center এ রিকোয়েস্ট করুন।

    Discover Your Ebook From Our Huge Collection E-Books | বাংলা ইবুক (Bengali Ebook)

Islamic ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম

Discussion in 'Role Of Islam' started by nobish, Oct 15, 2013. Replies: 5 | Views: 727

  1. nobish
    Offline

    nobish Welknown Member Staff Member Moderator

    Joined:
    Apr 28, 2013
    Messages:
    6,689
    Likes Received:
    2,315
    Gender:
    Male
    Location:
    Jessore
    Reputation:
    641
    Country:
    Bangladesh Bangladesh

    Hello guest, You Need To Sign Up or log in to see the link!



    অনেকের ধারণা নামাজের নিয়ত আরবিতে করা জরুরি। এমনটি ঠিক নয়। যে কোনো ভাষাতেই নামাজের নিয়ত করা যায়। নিয়ত মনে মনে করাই যথেষ্ট। ঈদের দিন ইমামের পেছনে কিবলামুখী দাঁড়িয়ে মনে এই নিয়ত করে নিবে—‘আমি অতিরিক্ত ছয় তাকবিরসহ এই ইমামের পেছনে ঈদুল আজহার দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করছি।’

    এরপর উভয় হাত কান বরাবর ওঠিয়ে ‘আল্লাহু আকবার’ বলে হাত বেেঁধ নিবে। হাত বাঁধার পর ছানা অর্থাত্ ‘সুবহানাকা আল্লাহুম্মা’ শেষ পর্যন্ত পড়ে নেবে। এরপর আল্লাহু আকবার বলে হাত কান পর্যন্ত ওঠিয়ে ছেড়ে দেবে। দ্বিতীয়বারও একই নিয়মে তাকবির বলে হাত ছেড়ে দেতে হবে। ইমাম সাহেব তৃতীয়বার তাকবির বলে হাত বেঁধে আউজুবিল্লাহ ও বিসমিল্লাহ পড়ে সূরা ফাতিহার সঙ্গে অন্য যে কোনো সূরা তিলাওয়াত করবেন।

    এ সময় মুক্তাদিরা নীরবে দাঁড়িয়ে থাকবেন। এরপর ইমাম সাহেব নিয়মমত রুকু-সিজদা সেরে দ্বিতীয় রাকাতের জন্য দাঁড়াবেন। মুক্তাদিরা ইমাম সাহেবের অনুসরণ করবেন। দ্বিতীয় রাকাতে ইমাম সাহেব প্রথমে সূরা ফাতিহার সঙ্গে অন্য সূরা পড়বেন। এরপর আগের মতো তিন তাকবির বলতে হবে। প্রতি তাকবিরের সময়ই উভয় হাত কান পর্যন্ত ওঠিয়ে ছেড়ে দিতে হবে। চতুর্থ তাকবির বলে হাত না ওঠিয়েই রুকুতে চলে যেতে হবে।

    এরপর অন্যান্য নামাজের নিয়মেই নামাজ শেষ করে সালাম ফেরাতে হবে। ঈদের নামাজ শেষে ইমাম সাহেব খুতবা পাঠ করবেন। জুমার খুতবার মতো এই খুতবা শোনা মুসল্লিদের জন্য ওয়াজিব। খুতবার সময় কথাবার্তা বলা, চলাফেলা করা, নামাজ পড়া সম্পূর্ণরূপে হারাম। কারও ঈদের নামাজ ছুটে গেলে কিংবা যে কোনো কারণে নামাজ নষ্ট হয়ে গেলে পুনরায় একাকী তা আদায় বা কাজা করার কোনো সুযোগ নেই। তবে চার বা তার অধিক লোকের ঈদের নামাজ ছুটে গেলে তাদের জন্য ঈদের নামাজ পড়ে নেয়া ওয়াজিব।


    লেখক- মুফতি মুহাম্মদ ইয়াহইয়া
     
    • Informative Informative x 4
    • Like Like x 1
  2. Yuvrajj
    Offline

    Yuvrajj Kazirhut Lover Writer

    Joined:
    Oct 3, 2012
    Messages:
    11,616
    Likes Received:
    1,508
    Gender:
    Male
    Location:
    ঢাকা
    Reputation:
    351
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    সংক্ষিপ্ত, কিন্তু গুছানো
    ধন্যবাদ
     
  3. abdullah
    Online

    abdullah Welknown Member Member

    Joined:
    Jul 30, 2012
    Messages:
    5,452
    Likes Received:
    1,612
    Reputation:
    864
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    খুব ভাল করেছেন। অনেক সময় ভুল হয়ে যায়।নিয়মটা একবার দেখে নেয়ার সুযোগ পেলাম। ধন্যবাদ।
     
  4. monjurul
    Offline

    monjurul Senior Member Member

    Joined:
    Jul 12, 2013
    Messages:
    1,041
    Likes Received:
    212
    Gender:
    Male
    Location:
    Mirpur-1, Dhaka.
    Reputation:
    312
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
  5. ~GURU~
    Offline

    ~GURU~ Regular Member Member

    Joined:
    Aug 23, 2012
    Messages:
    546
    Likes Received:
    287
    Gender:
    Male
    Location:
    ভবের হাট
    Reputation:
    142
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    ধন্যবাদ :)
     
  6. arn43
    Offline

    arn43 Kazirhut Elite Member Staff Member Moderator

    Joined:
    Aug 18, 2013
    Messages:
    25,194
    Likes Received:
    3,942
    Gender:
    Male
    Reputation:
    860
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    ঈদের নামাযের পদ্ধতিটা আমি অন্যরকম জানি। আমার জানাতে ভুল আছে কিনা সেটা এই লেখা দেখে প্রমান করতে পারলাম না! এখানে কোনো হাদিসের রেফারেন্স দেয়া হয়নি...
     

Pls Share This Page:

Users Viewing Thread (Users: 0, Guests: 0)