1. Hi Guest
    Pls Attention! Kazirhut Accepts Only Bengali (বাংলা) & English Language On this board. If u write something with other language, you will be direct banned!

    আপনার জন্য kazirhut.com এর পক্ষ থেকে বিশেষ উপহার :

    যে কোন সফটওয়্যারের ফুল ভার্সন প্রয়োজন হলে Software Request Center এ রিকোয়েস্ট করুন।

    Discover Your Ebook From Our Online Library E-Books | বাংলা ইবুক (Bengali Ebook)

Collected ছাড়পত্র ~ সুকান্ত ভট্টাচার্য

Discussion in 'Collected' started by passionboy, Sep 27, 2014. Replies: 38 | Views: 2489

  1. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
  2. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    অনুভব

    ১৯৪০
    অবাক পৃথিবী! অবাক করলে তুমি
    জন্মেই দেখি ক্ষুব্ধ স্বদেশভূমি।
    অবাক পৃথিবী! আমরা যে পরাধীন।
    অবাক, কী দ্রুত জমে ক্রোধ দিন দিন;
    অবাক পৃথিবী! অবাক করলে আরো–
    দেখি এই দেশে অন্ন নেইকো কারো।
    অবাক পৃথিবী! অবাক যে বারবার
    দেখি এই দেশে মৃত্যুরই কারবার।
    হিসেবের খাতা যখনি নিয়েছি হাতে
    দেখেছি লিখিত–‘রক্ত খরচ’ তাতে।
    এদেশে জন্মে পদাঘাতই শুধু পেলাম,
    অবাক পৃথিবী! সেলাম, তোমাকে সেলাম!

    ১৯৪৬
    বিদ্রোহ আজ বিদ্রোহ চারিদিকে,
    আমি যাই তারি দিন-পঞ্জিকা লিখে,
    এত বিদ্রোহ কখনো দেখে নি কেউ,
    দিকে দিকে ওঠে অবাদ্যতার ঢেউ;
    স্বপ্ন-চূড়ার থেকে নেমে এসো সব–
    শুনেছ? শুনছ উদ্দাম কলরব?
    নয়া ইতিহাস লিখছে ধর্মঘট;
    রক্তে রক্তে আঁকা প্রচ্ছদপট।
    প্রত্যহ যারা ঘৃণিত ও পদানত,
    দেখ আজ তারা সবেগে সমুদ্যত;
    তাদেরই দলের পেছনে আমিও আছি,
    তাদেরই মধ্যে আমিও যে মরি-বাঁচি।
    তাইতো চলেছি দিন-পঞ্জিকা লিখে–
    বিদ্রোহ আজ! বিপ্লব চারিদিকে।।

     
  3. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    আগামী

    জড় নই, মৃত নই, নই অন্ধকারের খনিজ,
    আমি তো জীবন্ত প্রাণ, আমি এক অঙ্কুরিত বীজ;
    মাটিতে লালিত ভীরু, শুদু আজ আকাশের ডাকে
    মেলেছি সন্দিগ্ধ চোখ, স্বপ্ন ঘিরে রয়েছে আমাকে।
    যদিও নগণ্য আমি, তুচ্ছ বটবৃক্ষের সমাজে
    তবু ক্ষুদ্র এ শরীরে গোপনে মর্মরধ্বনি বাজে,
    বিদীর্ণ করেছি মাটি, দেখেছি আলোর আনাগোনা
    শিকড়ে আমার তাই অরণ্যের বিশাল চেতনা।
    আজ শুধু অঙ্কুরিত, জানি কাল ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পাতা
    উদ্দাম হাওয়ার তালে তাল রেখে নেড়ে যাবে মাথা;
    তার পর দৃপ্ত শাখা মেলে দেব সবার সম্মুখে,
    ফোটাব বিস্মিত ফুল প্রতিবেশী গাছেদের মুখে।

    সংহত কঠিন ঝড়ে দৃঢ়প্রাণ প্রত্যেক শিকড়;
    শাখায় শাখায় বাঁধা, প্রত্যাহত হবে জানি ঝড়;
    অঙ্কুরিত বন্ধু যত মাথা তুলে আমারই আহ্বানে
    জানি তারা মুখরিত হবে নব অরণ্যের গানে।
    আগামী বসন্তে জেনো মিশে যাব বৃহতের দলে;
    জয়ধ্বনি কিশলয়ে; সম্বর্ধনা জানাবে সকলে।
    ক্ষুদ্র আমি তুচ্ছ নই- জানি আমি ভাবী বনস্পতি,
    বৃষ্টির, মাটির রসে পাই আমি তারি তো সম্মতি।
    সেদিন ছায়ায় এসো; হানো যদি কঠিন কুঠারে
    তবুও তোমায় আমি হাতছানি দেব বারে বারে;
    ফল দেব, ফুল দেব, দেব আমি পাখিরও কূজন
    একই মাটিতে পুষ্ট তোমাদের আপনার জন।।

     
  4. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    আগ্নেয়গিরি

    কখনো হঠাৎ মনে হয়ঃ
    আমি এক আগ্নেয় পাহাড়।
    শান্তির ছায়া-নিবিড় গুহায় নিদ্রিত সিংহের মতো
    চোখে আমার বহু দিনের তন্দ্রা।
    এক বিস্ফোরণ থেকে আর এক বিস্ফোরণের মাঝখানে
    আমাকে তোমরা বিদ্রূপে বিদ্ধ করেছ বারংবার
    আমি পাথরঃ আমি তা সহ্য করেছি।

    মুখে আমার মৃদু হাসি,
    বুকে আমার পুঞ্জীভূত ফুটন্ত লাভা।
    সিংহের মতো আধ-বোজা চোখে আমি কেবলি দেখছিঃ
    মিথ্যার ভিতে কল্পনার মশলায় গড়া তোমাদের শহর,
    আমাকে ঘিরে রচিত উৎসবের নির্বোধ অমরাবতী,
    বিদ্রূপের হাসি আর বিদ্বেষের আতস-বাজি–
    তোমাদের নগরে মদমত্ত পূর্ণিমা।

    দেখ, দেখঃ
    ছায়াঘন, অরণ্য-নিবিড় আমাকে দেখ;
    দেখ আমার নিরুদ্বিগ্ন বন্যতা।
    তোমাদের শহর আমাকে বিদ্রূপ করুক,
    কুঠারে কুঠারে আমার ধৈর্যকে করুক আহত,
    কিছুতেই বিশ্বাস ক’রো না–
    আমি ভিসুভিয়স-ফুজিয়ামার সহোদর।
    তোমাদের কাছে অজ্ঞাত থাক
    ভেতরে ভেতরে মোচড় দিয়ে ওঠা আমার অগ্ন্যুদ্‌গার,
    অরণ্যে ঢাকা অন্তর্নিহিত উত্তাপের জ্বালা।

    তোমার আকাশে ফ্যাকাশে প্রেত আলো,
    বুনো পাহাড়ে মৃদু-ধোঁয়ার অবগুণ্ঠন:
    ও কিছু নয়, হয়তো নতুন এক মেঘদূত।
    উৎসব কর, উৎসব কর–
    ভুলে যাও পেছনে আছে এক আগ্নেয় পাহাড়,
    ভিসুভিয়স-ফুজিয়ামার জাগ্রত বংশধর।
    আর,
    আমার দিন-পি কায় আসন্ন হোক
    বিস্ফোরণের চরম, পবিত্র তিথি।।

     
  5. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    আঠারো বছর বয়স

    আঠারো বছর বয়স কী দুঃসহ
    র্স্পধায় নেয় মাথা তোলবার ঝুঁকি,
    আঠারো বছর বয়সেই অহরহ
    বিরাট দুঃসাহসেরা দেয় যে উঁকি।

    আঠারো বছর বয়সের নেই ভয়
    পদাঘাতে চায় ভাঙতে পাথর বাধা,
    এ বয়সে কেউ মাথা নোয়াবার নয়–
    আঠারো বছর বয়স জানে না কাঁদা।

    এ বয়স জানে রক্তদানের পুণ্য
    বাষ্পের বেগে স্টিমারের মতো চলে,
    প্রাণ দেওয়া-নেওয়া ঝুলিটা থাকে না শূন্য
    সঁপে আত্মাকে শপথের কোলাহলে।

    আঠরো বছর বয়স ভয়ঙ্কর
    তাজা তাজা প্রাণে অসহ্য যন্ত্রণা,
    এ বয়সে প্রাণ তীব্র আর প্রখর
    এ বয়সে কানে আসে কত মন্ত্রণা।

    আঠারো বছর বয়স যে দুর্বার
    পথে প্রান্তরে ছোটায় বহু তুফান,
    দুর্যোগে হাল ঠিক মতো রাখা ভার
    ক্ষত-বিক্ষত হয় সহস্র প্রাণ।

    আঠারো বছর বয়সে আঘাত আসে
    অবিশ্র্রান্ত; একে একে হয় জড়ো,
    এ বয়স কালো লক্ষ দীর্ঘশ্বাসে
    এ বয়স কাঁপে বেদনায় থরোথরো।

    তব আঠারোর শুনেছি জয়ধ্বনি,
    এ বয়স বাঁচে দুর্যোগে আর ঝড়ে,
    বিপদের মুখে এ বয়স অগ্রণী
    এ বয়স তবু নতুন কিছু তো করে।

    এ বয়স জেনো ভীরু, কাপুরুষ নয়
    পথ চলতে এ বয়স যায় না থেমে,
    এ বয়সে তাই নেই কোনো সংশয়–
    এ দেশের বুকে আঠারো আসুক নেমে।।

     
  6. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    ইউরোপের উদ্দেশে

    ওখানে এখন মে-মাস তুষার-গলানো দিন,
    এখানে অগ্নি-ঝরা বৈশাখ নিদ্রাহীন;
    হয়তো ওখানে শুরু মন্থর দক্ষিণ হাওয়া;
    এখানে বোশেখী ঝড়ের ঝাপ্টা পশ্চাৎ দাওয়া;
    এখানে সেখানে ফুল ফোটে আজ তোমাদের দেশে
    কত রঙ, কত বিচিত্র নিশি দেখা দেয় এসে।
    ঘর ছেড়ে পথে বেরিয়ে পড়েছে কত ছেলেমেয়ে
    এই বসন্তে কত উৎসব কত গান গেয়ে।
    এখানে তো ফুল শুকনো, ধূসর রঙের ধুলোয়
    খাঁ-খাঁ করে সারা দেশটা, শান্তি গিয়েছে চুলোয়।
    কঠিন রোদের ভয়ে ছেলেমেয়ে বন্ধ ঘরে,
    সব চুপচাপ; জাগবে হয়তো বোশেখী ঝড়ে।
    অনেক খাটুনি, অনেক লড়াই করার শেষে
    চারিদিকে ক্রমে ফুলের বাগান তোমাদের দেশে;
    এদেশে যুদ্ধ মহামারী, ভুখা জ্বলে হাড়ে হাড়ে-
    অগ্নিবর্ষী গ্রীষ্মের মাঠে তাই ঘুম কাড়ে
    বেপরোয়া প্রাণ; জমে দিকে দিকে আজ লাখে লাখে-
    তোমাদের দেশে মে-মাস; এখানে ঝোড়ো বৈশাখ।।

     
  7. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    এই নবান্নে

    এই হেমন্তে কাটা হবে ধান,
    আবার শূন্য গোলায় ডাকবে ফসলের বান–
    পৌষপার্বণে প্রাণ-কোলাহলে ভরবে গ্রামের নীরব শ্মশান।
    তবুও এ হাতে কাস্তে তুলতে কান্না ঘনায়ঃ
    হালকা হাওয়ায় বিগত স্মৃতিকে ভুলে থাকা দায়;
    গত হেমন্তে মরে গেছে ভাই, ছেড়ে গেছে বোন,
    পথে-প্রান্তরে খামারে মরেছে যত পরিজন;
    নিজের হাতের জমি ধান-বোনা,
    বৃথাই ধুলোতে ছড়িয়েছে সোনা,
    কারোরই ঘরেতে ধান তোলবার আসেনি শুভক্ষণ–
    তোমার আমার ক্ষেত ফসলের অতি ঘনিষ্ঠ জন।

    এবার নতুন জোরালো বাতাসে
    জয়যাত্রার ধ্বনি ভেসে আসে,
    পিছে মৃত্যুর ক্ষতির নির্বাচন–
    এই হেমন্তে ফসলেরা বলেঃ কোথায় আপন জন?
    তারা কি কেবল লুকোনো থাকবে,
    অক্ষমতার গ্লানিকে ঢাকবে,
    প্রাণের বদলে যারা প্রতিবাদ করছে উচ্চারণ
    এই নবান্নে প্রতারিতদের হবে না নিমন্ত্রণ?

     
  8. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    একটি মোরগের কাহিনী

    একটি মোরগ হঠাৎ আশ্রয় পেয়ে গেল
    বিরাট প্রাসাদের ছোট্ট এক কোণে,
    ভাঙা প্যাকিং বাক্সের গাদায়–
    আরো দু’তিনটি মুরগীর সঙ্গে।
    আশ্রয় যদিও মিলল,
    উপযুক্ত আহার মিলল না।
    সুতীক্ষ্ণ চিৎকারে প্রতিবাদ জানিয়ে
    গলা ফাটাল সেই মোরগ
    ভোর থেকে সন্ধে পর্যন্ত–
    তবুও সহানুভূতি জানাল না সেই বিরাট শক্ত ইমারত।​


    তারপর শুরু হল তাঁর আঁস্তাকুড়ে আনাগোনা;
    আর্শ্চর্য! সেখানে প্রতিদিন মিলতে লাগল
    ফেলে দেওয়া ভাত-রুটির চমৎকার প্রচুর খাবার!​


    তারপর এক সময় আঁস্তাকুড়েও এল অংশীদার–
    ময়লা ছেঁড়া ন্যাকড়া পরা দু’তিনটে মানুষ;
    কাজেই দুর্বলতার মোরগের খাবার গেল বন্ধ হয়ে।​


    খাবার! খাবার! খানিকটা খাবার!
    অসহায় মোরগ খাবারের সন্ধানে
    বার বার চেষ্টা ক’রল প্রাসাদে ঢুকতে,
    প্রত্যেকবারই তাড়া খেল প্রচণ্ড।
    ছোট্ট মোরগ ঘাড় উঁচু করে স্বপ্ন দেখে–
    ‘প্রাসাদের ভেতর রাশি রাশি খাবার’!​


    তারপর সত্যিই সে একদিন প্রাসাদে ঢুকতে পেল,
    একেবারে সোজা চলে এল
    ধব্‌ধবে সাদা দামী কাপড়ে ঢাকা খাবার টেবিলে ;
    অবশ্য খাবার খেতে নয়–
    খাবার হিসেবে​


     
  9. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    ঐতিহাসিক

    আজ এসেছি তোমাদের ঘরে ঘরে–
    পৃথিবীর আদালতের পরোয়ানা নিয়ে
    তোমরা কি দেবে আমার প্রশ্নের কৈফিয়ৎ:
    কেন মৃত্যুকীর্ণ শবে ভরলো পঞ্চাশ সাল?
    আজ বাহান্ন সালের সূচনায় কি তার উত্তর দেবে?
    জানি! স্তব্ধ হয়ে গেছে তোমাদের অগ্রগতির স্রোত,
    তাই দীর্ঘশ্বাসের ধোঁয়ায় কালো করছ ভবিষ্যৎ
    আর অনুশোচনার আগুনে ছাই হচ্ছে উৎসাহের কয়লা।
    কিন্তু ভেবে দেখেছ কি?
    দেরি হয়ে গেছে অনেক, অনেক দেরি!
    লাইনে দাঁড়ানো অভ্যেস কর নি কোনোদিন,
    একটি মাত্র লক্ষ্যের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে
    মারামারি করেছ পরস্পর,
    তোমাদের ঐক্যহীন বিশৃঙ্খলা দেখে
    বন্ধ হয়ে গেছে মুক্তির দোকানের ঝাঁপ।
    কেবল বঞ্চিত বিহ্বল বিমূঢ় জিজ্ঞাসাভরা চোখে
    প্রত্যেকে চেয়েছ প্রত্যেকের দিকেঃ
    –কেন এমন হল?

    একদা দুর্ভিক্ষ এল
    ক্ষুদার মাহীন তাড়নায়
    পাশাপাশি ঘেঁষাঘেঁষি সবাই দাঁড়ালে একই লাইনে
    ইতর-ভদ্র, হিন্দু আর মুসলমান
    একই বাতাসে নিলে নিঃশ্বাস।
    চাল, চিনি, কয়লা, কেরোসিন?
    এ সব দুষ্প্রাপ্য জিনিসের জন্য চাই লাইন।
    কিন্তু বুঝলে না মুক্তিও দুর্লভ আর দুর্মূল্য,
    তারো জন্যে চাই চল্লিশ কোটির দীর্ঘ, অবিচ্ছিন্ন এক লাইন।

    মূর্খ তোমরা
    লাইন দিলেঃ কিন্তু মুক্তির বদলে কিনলে মৃত্যু,
    রক্তয়ের বদলে পেলে প্রবঞ্চনা।
    ইতিমধ্যে তোমাদের বিবদমান বিশৃঙ্খল ভিড়ে
    মুক্তি উঁকি দিয়ে গেছে বহুবার।
    লাইনে দাঁড়ানো আয়ত্ত করেছে যারা,
    সোভিয়েট, পোল্যান্ড, ফ্রান্স
    রক্তমূল্যে তারা কিনে নিয়ে গেল তাদের মুক্তি
    সর্ব প্রথম এই পৃথিবীর দোকান থেকে।
    এখনো এই লাইনে অনেকে প্রতীক্ষমান,
    প্রার্থী অনেক; কিন্তু পরিমিত মুক্তি।
    হয়তো এই বিশ্বব্যাপী লাইনের শেষে
    এখনো তোমাদের স্থান হতে পারে–
    এ কথা ঘোষণা ক’রে দাও তোমাদের দেশময়
    প্রতিবেশীর কাছে।
    তারপর নিঃশব্দে দাঁড়াও এ লাইনে প্রতিজ্ঞা
    আর প্রতীক্ষা নিয়ে
    হাতের মুঠোয় তৈরী রেখে প্রত্যেকের প্রাণ।
    আমি ইতিহাস, আমার কথাটা একবার ভেবে দেখো,
    মনে রেখো, দেরি হয়ে গেছে, অনেক অনেক দেরি।
    আর মনে ক’রো আকাশে আছে এক ধ্রুব নক্ষত্র,
    নদীর ধারায় আছে গতির নির্দেশ,
    অরণ্যের মর্মরধ্বনিতে আছে আন্দোলনের ভাষা,
    আর আছে পৃথিবীর চিরকালের আবর্তন।।

     
  10. passionboy
    Offline

    passionboy Kazirhut Suprime Member Staff Member Global Moderator

    Joined:
    Aug 20, 2012
    Messages:
    56,943
    Likes Received:
    10,363
    Gender:
    Male
    Location:
    সিটি গেইট, চট্টগ্রাম
    Reputation:
    704
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    কনভয়

    হঠাৎ ধূলো উড়িয়ে ছুটে গেল
    যুদ্ধফেরত এক কনভয়ঃ
    ক্ষেপে-ওঠা পঙ্গপালের মতো
    রাজপথ সচকিত ক’রে
    আগে আগে কামান উঁচিয়ে,
    পেছনে নিয়ে খাদ্য আর রসদের সম্ভার।​


    ইতিহাসের ছাত্র আমি,
    জানালা থেকে চোখ ফিরিয়ে নিলাম
    ইতিহাসের দিকে।
    সেখানেও দেখি উন্মত্ত এক কনভয়
    ছুটে আসছে যুগযুগান্তের রাজপথ বেয়ে।
    সামনে ধূম-উদ্‌গীরণরত কামান,
    পেছনে খাদ্যশস্য আঁকড়ে-ধরা জনতা–
    কামানের ধোঁয়ার আড়ালে আড়ালে দেখলাম,
    মানুষ।
    আর দেখলাম ফসলের প্রতি তাদের পুরুষানুক্রমিক
    মমতা।
    অনেক যুগ, অনেক অরণ্য,পাহাড়, সমুদ্র পেরিয়ে
    তারা এগিয়ে আসছে; ঝল্‌সানো কঠোর মুখে।।​


     

Pls Share This Page:

Users Viewing Thread (Users: 0, Guests: 0)