1. Self-Written সেকশনে শুধু মাত্র স্বরচিত গল্প, উপন্যাস, কবিতা, ছড়া, রম্য রচনা প্রকাশ করা যাবে। সংগৃহীত কোন আরটিক্যাল এই সেকশনে পোস্ট করা হলে, বিনা নোটিশে তা ডাস্টবিনে ফেলা হবে।
  2. Hi Guest
    Pls Attention! Kazirhut Accepts Only Bengali (বাংলা) & English Language On this board. If u write something with other language, you will be direct banned!

    আপনার জন্য kazirhut.com এর পক্ষ থেকে বিশেষ উপহার :

    যে কোন সফটওয়্যারের ফুল ভার্সন প্রয়োজন হলে Software Request Center এ রিকোয়েস্ট করুন।

    Discover Your Ebook From Our Online Library E-Books | বাংলা ইবুক (Bengali Ebook)

SelfWritten ছুটির দিন আনন্দে কাটাতে হয়

Discussion in 'Self-Written' started by devlion, Jul 15, 2016. Replies: 1 | Views: 351

  1. devlion
    Offline

    devlion Newbie Writer

    Joined:
    Jul 3, 2016
    Messages:
    65
    Likes Received:
    20
    Gender:
    Male
    Location:
    Delhi
    Reputation:
    0
    Country:
    India India
    যাচ্ছি কোথায় শ্রীরামপুর। শ্রীরামপুর মানে আমি বুঝি ফালুদা কুলফি।কখনো আবার সুযোগ মিললে খেতে চাই। হ্যা খেতে চাই খাওয়াতে চাওয়ার চেয়ে খেতেই বেশ লাগে।

    কুলফি টুলফির পালা চুকে যাওয়ার পর হাঁটাহাঁটি শুরু হোল। শ্রীরামপুর গলিঘুপচির শহর। অচেনা একটা গলি তে ঢুকে গেলাম। লোকজন কম ছিল গুচ্ছের টেলারের দোকান ছিল। বাড়ির এতো কাছে এমন একটা দরজি পাড়া ছিল জানতাম না। হাঁটতে হাঁটতে একটা সরকারী বহুপুরনো নাবিক দের থাকার বাড়ি সংস্কার করছে দেখতে দেখতে অন্ধকার বটগাছ তলাটাতে পৌঁছলাম। এটা সিগারেট ফোঁকার যায়গা। পাস দিয়েএক বড়লোক বাপের বড়লোক ছেলে বাইকের পেছনে প্রেমিকা কে বসিয়ে তার বাপ কিছু একটা মানবে না বলতে বলতে হুস করে বেড়িয়ে গেলো। অন্ধকারে খানিক নদী দেখলামতারপর নৌকা করে ধবিঘাট।

    আজকে গঙ্গা তে ভীষণ জলে উথাল পাথাল চলছিল।নৌকা তে ধারে বসার যায়গা গুলোতে বসেছিলাম। কিছুক্ষণ চলার পর গতিক সুবিধারনয় দেখে উঠে দাঁড়ালাম। নৌকো বেশ দুলছিল। ধোবি ঘাটে বসতে হয় হাওয়া খেতে হয়অন্য লোকের প্রেমিকার দিকে ড্যাব ড্যাব করে তাকিয়ে দেখতে হয়।হাওয়া না দিলে আরো বেশী বেশী করে দেখতে হয়। পেছনে একদল গীটার বাজিয়ে গান জুড়ল। প্রথমের গান টা ওদের বানানো।জগত কামড়াচ্ছে সর্বত্র/ দেখবে তুমি বেকারত্ব গাইতে গাইতে তারা পৌঁছে গেলো ফসিলের ওমা শ্যামা সঙ্গীতে। এই সময় একটা দমকা হাওয়া শুরু হোল। পেছনের এঁড়ে গরুর দল অ্যাসিড ছোড় মুখে গীটারের জ্যাংঝ্যাং সহতীব্র সুরে গেয়ে উঠল। ওখান থেকে পিঠটান দিলুম।

    হেটে স্টেশন ফিরবোকিন্তু বড় রাস্তার ধুলো খেতে নারাজ ভেতরের রিভার সাইড রোড ধরলাম। রাস্তাগুলো বেশ পরিষ্কার দুধারে প্রচুর গাছপালা যায়গা টাকে বেশ ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা করে রেখেছে। হাটতে হাঁটতে চোখ গেলো রাস্তার ধারে ধারে ল্যাম্প পোষ্টের উপর লাগানো বেলন আকৃতির বস্তু গুলোর দিকে।ভালো করে দেখে বুঝলাম সকালে গানচালানোর ব্যাবস্থা করে রেখেছে। অফিসার দের মেসের পাস দিয়ে মিশনের পাস দিয়ে হেটে হেটে উঠলাম একটা ঐতিহাসিক মূর্তির পাশে। এক ধনুর্ধরের মূর্তি নামের যায়গাতে দেখলাম লেখা আছে অর্জুন। দেখে মনে হোল ব্রোঞ্জের তৈরি।

    বাসরাস্তা তে এসে উঠলাম ব্ল্যাক ক্যাটের রোয়া ফুলিয়ে ওঠা কালো বেড়াল মূর্তির পাস দিয়ে হেটে হেটে ভীষণ জল তেষ্টা পাচ্ছিল। মাথা তে ছিল হিন্দিস্কুলে একটা মেলা বসেছে। আজকাল মেলা টার কোননাম নেই আগে কুটির শিল্পমেলা বলত। এবার মেলা তে পিণ্টু মিউজিয়াম বসেছে একটা ভালো আমের শরবৎ ওয়ালাবসেছে। আমের সরবতে গলা ভেজাতে ভেজাতে পিণ্টূ মিউজিয়ামের ভোজপুরি গানেরমধ্যে মধ্যে আসুনদুই মাথা ওয়ালা ছাগল দেখুন ইত্যাদি কিছুক্ষণ শুনলাম।এর পর আরো হেটে হেটে কালো গেঞ্জির পিঠ জবজবে করে ঘামে ভিজিয়ে বি টি রোড ধরেহেটে হেটে বাড়ি ঢুকলাম।
     
    • Like Like x 1
  2. sorol manush
    Offline

    sorol manush সরল মানুষ Member

    Joined:
    Oct 10, 2012
    Messages:
    2,593
    Likes Received:
    441
    Reputation:
    538
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    আপনার কথনগুলো পড়লে ক্লান্তি দূর হয়। চালিয়ে যাবেন।
     
    • Like Like x 1

Pls Share This Page:

Users Viewing Thread (Users: 0, Guests: 0)