1. Hi Guest আপনার জন্য kazirhut.com এর বিশেষ উপহার :

    যেকোন সফটওয়্যারের ফুল ভার্সনের জন্য Software Request Center এ রিকোয়েস্ট করুন।

    Discover Your Ebook From Our Huge Collection E-Books | বাংলা ইবুক (Bengali Ebook)

Dismiss Notice
Hi Guest! Welcome to Kazirhut.com. we would love to see you something. Please visit this funny thread "আগষ্ট ২০১৭ ইং মাসের হাজিরার ফলাফল" and discover kazirhut's entertainment event so that you can pass some funny times with us. Thnx.

Islamic জিন, জাদুটোনা ও বদনজর

Discussion in 'Role Of Islam' started by kaium, Oct 23, 2016. Replies: 54 | Views: 980

  1. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    আল্লাহ তাআলা এই বিশ্বজগৎ সৃষ্টি করে একে নিয়মের অধীন করেছেন। কিছু জিনিস আপনার হয়ে কাজ করে, আর কিছু জিনিস আপনার নিজে কাজ করে অর্জন করে নিতে হয়। যেমন, সূর্যের আলো, বায়ুমণ্ডল, বৃষ্টি এসব আপনি বিনা খরচায় পেয়ে যান। কিন্তু কৃষিকাজ করে ফসল ফলানো, খনি থেকে খনিজ আহরণের জন্য পরিশ্রম করতে হয়।
     
  2. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]অদেখা ভুবনের অস্তিত্ব

    এগুলো হলো মানবজাতির জন্য দেওয়া নিয়ম। তেমনি জিন ও তাদের ব্যবহার্য জিনিসের জন্যেও তাদের সত্তার প্রকৃতি অনুযায়ী নিয়ম নির্ধারিত আছে। তারা দেয়াল ভেদ করে যেতে পারে, দেহাকৃতি পরিবর্তন করতে পারে। ফেরেশতাদের জন্যও নির্দিষ্ট নিয়ম আছে। আল্লাহর আদেশে তাঁরা আসমান জমিনের মাঝে চলাফেরা করেন, বিভিন্ন রূপধারণ করতে পারেন।


    অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞানগুলো দুভাবে অর্জিত হয়। নিজে অবলোকন করা আর গবেষণাগারে পরীক্ষা করা। কিন্তু একটা জায়গায় গিয়ে আমাদের জ্ঞানবুদ্ধিকে থামতে হয়। অদেখা জগতের জ্ঞান আমাদের আয়ত্তের বাইরে। যেমন- ফেরেশতাদের জগত সম্পর্কে আমাদের কোনো চাক্ষুস ধারণা নেই।[/HIDE-THANKS]
     
  3. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]জিনদের জগতটাও এমন। তাদের মধ্যে আল্লাহভীরু ও নাফরমান আছে। কিন্তু কোনো প্রকার সম্পর্কেই আমরা চাক্ষুসভাবে জানি না। জাহান্নামিদের খাবার যাক্কুম গাছের বর্ণনা দিয়ে আল্লাহ বলেন, "এটি একটি বৃক্ষ যা উদগত হয় জাহান্নামের মূলে। এর ফল শয়তানের মাথার মত।" (সূরা সফফাত ৩৭:৬৪-৬৫)

    আল্লাহ এখানে শয়তানের মাথার উপমা দিয়েছেন কারণ আমরা এর সম্পর্কে জানি না। কিন্তু শয়তানের মাথা বলতেই আমাদের মাথায় ভয়ানক একটি চিত্র আসে। যে কোনো শিল্পীর চেয়ে আল্লাহর আঁকা এই চিত্রই অধিক আবেদন সৃষ্টি করে।
    [/HIDE-THANKS]
     
  4. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]গায়েব কী?

    অনেক বিষয়ই আল্লাহ আমাদের জ্ঞানবুদ্ধির আয়ত্তের বাইরে রেখেছেন। এসব ক্ষেত্রে আল্লাহ যা বলেছেন তাই বিশ্বাস করা ছাড়া আমাদের কিছু করার নেই। আল্লাহ বলেন, "নভোমন্ডল ও ভুমন্ডলের সৃজনকালে আমি তাদেরকে সাক্ষী রাখিনি এবং তাদের নিজেদের সৃজনকালেও না। এবং আমি এমনও নই যে, বিভ্রান্ত কারীদেরকে সাহায্যকারীরূপে গ্রহণ করবো।" (সূরা কাহফ ১৮:৫১)[/HIDE-THANKS]
     
  5. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]কেউ যদি আল্লাহর কথার বিপরীত কিছু বলে আমরা তা প্রত্যাখ্যান করি। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একসময় দাবি করা হয় যে মানুষ ও বাঁদরের মধ্যকার "মিসিং লিংক" আবিষ্কৃত হয়েছে। তারা মানুষের একটি খুলি খুঁজে পেয়েছে যার চোয়াল বাঁদরের। তারা দাবি করে যে এ থেকেই প্রমাণিত হয় মানুষ হলো বাঁদরের বংশধর। পরে যখন খুলিটিকে উচ্চতর গবেষণার জন্য নেওয়া হয় তখন আবিষ্কার হয় যে, মানুষের খুলিতে বাঁদরের চোয়াল কৃত্রিমভাবে জোড়া দিয়ে এটি তৈরি করা হয়েছে যা প্রাথমিক গবেষণায় ধরা পড়েনি।

    গায়েবের ব্যাপারে আল্লাহর কথাকে সরাসরি মেনে নিলে অনেক সময় ও অর্থ বেঁচে যেতো। কারণ এসব গবেষণা ঘুরেফিরে আল্লাহর কথাকেই সত্য প্রমাণ করে।
    [/HIDE-THANKS]
     
  6. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]অস্তিত্ব ও বিজ্ঞান

    কোনো জিনিসের অস্তিত্ব সম্পর্কে আমরা জানি না, এর অর্থ এই না যে সেটার অস্তিত্ব নেই। আল্লাহ হয়তো আমাদের চারপাশে সেসব জিনিস ছড়িয়ে ছিটিয়ে রেখেছেন। সেসব আমাদের জীবনকে প্রভাবিতও করছে। কিন্তু আমরা আমাদের জ্ঞানের সীমাবদ্ধতার জন্য তা স্বীকার করছি না। অণুবীক্ষণ যন্ত্র ছাড়া দেখা যায় না এমন জীবাণুগুলো সম্পর্কে মানুষ একসময় জানতোও না। অথচ এদের কারণে কত রোগের সৃষ্টি হয়। একটা সময়ে এসে আল্লাহ আমাদেরকে এদের অস্তিত্ব সম্পর্কে জানার বৈজ্ঞানিক সামর্থ্য দিলেন। কিন্তু এর অর্থ তো এই না যে আমাদের জানার আগে তাদের অস্তিত ছিলো না।[/HIDE-THANKS]
     
  7. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]জগতে ছড়িয়ে আছে প্রমাণ

    আণুবীক্ষণিক জগতে যা সত্য, দূরবীক্ষণিক জগতেও তা সত্য। এত লক্ষ কোটি তারকা আমরা আবিষ্কার করার আগেও ছিলো। ভূগর্ভস্থ খনিজের অস্তিত্ব আগে থেকেই ছিলো। আল্লাহ বলেন, "নভোমন্ডলে, ভুমন্ডলে, এতদুভয়ের মধ্যবর্তী স্থানে এবং সিক্ত ভূগর্ভে যা আছে, তা তাঁরই আয়ত্তাধীন।" (সূরা ত্বা হা ২০:৬)

    মানুষ প্রকৃতিতে কিছু যোগ করেনি, কিছু সরিয়েও নেয়নি। আল্লাহই প্রকৃতিতে এমন উপাদান রেখেছেন যার ফলে দূরদূরান্তে শব্দ ও চিত্র পাঠানো যায়। সভ্যতার যে সময়টায় এসে সেগুলো আবিষ্কৃত হবে বলে আল্লাহ চেয়েছেন, তখনই মানুষ এসব আবিষ্কার করেছে।
    [/HIDE-THANKS]
     
  8. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]অস্তিত্বের উপলব্ধি

    বিজ্ঞান কোনোকিছু সৃষ্টি করে না। এটি প্রকৃতির মাঝে আগে থেকেই লুক্কায়িত বৈশিষ্ট্যগুলোকে উদঘাটন করে। অজানা ভুবনের বিষয়টিও এরকমই, যার অস্তিত্বের অনেক প্রমাণ আছে কিন্তু আমরা উপলব্ধি করি না। আল্লাহ যখন চান, তখনই কোনো অজানা বিষয় আমাদের সামনে উন্মোচিত হয়।

    "তাঁর কাছেই অদৃশ্য জগতের চাবি রয়েছে। এ গুলো তিনি ব্যতীত কেউ জানে না। স্থলে ও জলে যা আছে, তিনিই জানেন। কোন পাতা ঝরে না; কিন্তু তিনি তা জানেন। কোন শস্য কণা মৃত্তিকার অন্ধকার অংশে পতিত হয় না এবং কোন আর্দ্র ও শুস্ক দ্রব্য পতিত হয় না; কিন্তু তা সব প্রকাশ্য গ্রন্থে রয়েছে।" (সূরা আনআম ৬:৫৯)

    "তোমরা আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের অভিপ্রায়ের বাইরে অন্য কিছুই ইচ্ছা করতে পার না।" (সূরা তাকভীর ৮১:২৯)
    [/HIDE-THANKS]
     
  9. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]অদেখা অস্তিত্ব অনেক
    পূর্বের আলোচনা থেকে স্পষ্ট হয়ে গেলো যে আমাদের অজানা অনেক সত্তারই অস্তিত্ব আছে। এসব ব্যাপারে আল্লাহ আমাদের যতটুকু জানিয়েছেন, তার বাইরে আমাদের কোনো চাক্ষুস জ্ঞান নেই।

    এসব সত্তার মধ্যে আছেন ফেরেশতাগণ যাঁরা আল্লাহর নির্দেশে বিভিন্ন কাজে লিপ্ত।

    "তারা আল্লাহ তা'আলা যা আদেশ করেন, তা অমান্য করে না এবং যা করতে আদেশ করা হয়, তাই করে।" (সূরা তাহরীম ৬৬:৬)

    এছাড়া আছে জিন জাতি যাদের মধ্যে কেউ আল্লাহভীরু, কেউ কাফির নাফরমান। এসব বিদ্রোহী জিন হলো শয়তান।
    [/HIDE-THANKS]
     
  10. kaium
    Offline

    kaium Ex-Staff

    Joined:
    Aug 17, 2012
    Messages:
    2,709
    Likes Received:
    1,358
    Gender:
    Male
    Location:
    Dhaka
    Reputation:
    126
    Country:
    Bangladesh Bangladesh
    [HIDE-THANKS]"আমাদের কেউ কেউ সৎকর্মপরায়ণ এবং কেউ কেউ এরূপ নয়। আমরা ছিলাম বিভিন্ন পথে বিভক্ত।" (সূরা জিন ৭২:১১)

    শয়তানেরা মানুষের অকল্যাণকামী এবং তার ক্ষতি করতে তৎপর। মানুষ মাটি থেকে সৃষ্ট ও জিন আগুন থেকে সৃষ্ট হওয়ায় তারা এমন কিছু পারে যা আমরা পারি না। যেমন, তারা আমাদের দেখতে পায়, আমরা তাদের দেখি না।

    "তার দলবল তোমাদেরকে দেখে, যেখান থেকে তোমরা তাদের দেখো না।" (সূরা আ'রাফ ৭:২৭)
    [/HIDE-THANKS]
     

Pls Share This Page:

Users Viewing Thread (Users: 0, Guests: 0)